ঈদে মিলাদুন্নবী উদযাপনের জন্য চাঁদা দেয়া ও খানা খাওয়া।

ঈদে মিলাদুন্নবী উদযাপনের জন্য চাঁদা দেয়া ও খানা খাওয়া।

Md.Ishaq Shahid   22 March 2020   363 Last Updated : 01:25 PM 22 March 2020

প্রশ্ন: ১৫৫/১৪৪১,২০২০
রবিউল আউয়াল মাসে বেদআতিরা ঈদে মিলাদুন্নবী পালন করে। এ উপলক্ষে তারা গরু জবেহ করে, খানার আয়োজন করে। প্রত্যেক মহল্লায় ঈদে মিলাদুন্নবী উদযাপন কমিটি আছে। তারা এসবের আয়োজন করে। তারা প্রত্যেক বাসা থেকে নির্ধারিত হারে টাকা উঠায়। দিতে না চাইলেও বিভিন্ন কারণে না দিয়ে পারা যায় না। তারা খানা রান্না করার পর প্রত্যেক বাসায় পাঠায়। এখন আমার প্রশ্ন হল তাদের খানা গুলো খাওয়া আমাদের জন্য জায়েজ হবে কিনা?

নিবেদক
হাফেজ আব্দুর রহমান
কুমিল্লা

উত্তর: ১৫৫/১৪৪১,২০২০

بسم الله الرحمن الرحيم
الجواب باسم ملهم الصدق والصواب.

কুরআন হাদীস ও ফিকহের নির্ভরযোগ্য কিতাব সমূহ অধ্যয়নে একথা জানা যায় যে, প্রচলিত ঈদে মিলাদুন্নবী পালন করা বিদআত। তাই এসব অনুষ্ঠানের জন্য চাঁদা দেয়া জায়েজ নেই। তবে কোন কারণে যদি বাধ্য হয়ে দিতে হয়, এবং যে গরু জবাই করা হয় বা যেখানে বিতরণ করা হয় তা যদি আল্লাহর নামে জবাই করা হয় বা পাকানো হয় তাহলে তা খাওয়া জায়েজ আছে। তবে উক্ত খানা না খাওয়ার দ্বারা যদি প্রভাব পড়ে এবং এতে ফেতনা না হয় তাহলে ওই খানা থেকে বেঁচে থাকা উত্তম। আর যদি আল্লাহ ছাড়া অন্য কারো নামে জবাই করা হয় বা পাকানো হয় তাহলে তা খাওয়া জায়েজ নেই।

Last Updated : 01:25 PM 22 March 2020